আপনার জানার ও বিনোদনের ঠিকানা

‘যুক্তরাষ্ট্র কি বিএনপিকে ধোঁকা দিয়েছে’

নিজস্ব প্রতিবেদক: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপিকে কি ধোঁকা দিয়েছে-এরকম একটি প্রশ্ন এখন বিএনপির মধ্যে ঘুরপাক খাচ্ছে। বিএনপি নেতারা নিজেদের মধ্যে আলাপ আলোচনায় এই প্রসঙ্গটি বারবার আনছেন। বিএনপির একাধিক নেতা মনে করে, বিএনপি যে আগ্রাসী অবস্থান গ্রহণ করেছিল, সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনে বিএনপি কর্মীদের মধ্যে যে তেজি ভাব এসেছিল, তার প্রধান কারণ ছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মনোভাব এবং আগ্রহ। তাছাড়া বিভিন্ন সময় মার্কিন রাষ্ট্রদূত এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে আসা কূটনীতিকরা বিএনপি নেতৃবৃন্দের সঙ্গে যে ভাষায় যে ভাবে কথা বলেছেন তাতে বিএনপির নেতাদের মধ্যে স্থির বিশ্বাস জন্মগ্রহণ করেছিল যে, তারা আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রাখতে চায় না। আওয়ামী লীগকে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দেওয়া এখন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম এজেন্ডা। আর এ কারণেই বিএনপি নেতারা এই বক্তব্যটিকে তাদের কর্মীদের কাছে সঞ্চারিত করেছিল এবং কর্মীরা উৎসাহিত হয়েছিল।

তাছাড়া প্রকাশ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন বক্তব্য, বিবৃতি এবং অবস্থান বিএনপিকে আরও চাঙ্গা করা ছিল। কিন্তু এ সবই কি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আন্তরিক অবস্থান ছিল নাকি বিএনপিকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখার জন্য যুক্তরাষ্ট্র ভারতের পক্ষ হয়ে বিএনপিকে ধোঁকা দিয়েছিল এই প্রশ্নটি এখন প্রধান হয়ে উঠেছে।’

কোন কোন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষক মনে করেন যে, এবার নির্বাচনে যদি বিএনপি অংশগ্রহণ করত তাহলে এই নির্বাচনটি অন্যরকম নির্বাচন হত। প্রথমত, এ বারের নির্বাচনে কারচুপি, ভোট ডাকাতি বা অন্য কোন কিছু করার বিষয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতির একটি কঠোর নেতিবাচক অবস্থান ছিল। তিনি সবাইকে বারবার একটি কথা স্পষ্ট ভাবে জানিয়েছিলেন যে, নির্বাচনে কোনরকম কারচুপি করা যাবে না। অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন ছিল তার কমিটমেন্ট। এ কারণে এই নির্বাচনে যদি বিএনপি নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি পূরণ ছাড়াও অংশগ্রহণ করত তাহলে নির্বাচনে নাটকীয় ভালো ফলাফল করতো। সবচেয়ে খারাপ ফলাফল হলেও বিএনপি ৫০ থেকে ৭০টি আসন পেত।

জাতীয় সংসদে যদি বিএনপির ৫০ থেকে ৭০টি আসন থাকে তাহলে বিএনপি একটি অত্যন্ত শক্তিশালী বিরোধী দল হিসেবে আত্মপ্রকাশ করত এবং সরকারকে চাপের ওপর রাখতে সক্ষম হত। এর ফলে আগামী পাঁচ বছরে আওয়ামী লীগ একটি শক্তিশালী বিরোধী দলকে মোকাবেলা করে কোণঠাসা অবস্থায় দেশ পরিচালনা করত এবং বিএনপি সারাদেশে তার সংগঠন গুছিয়ে আরও চাঙ্গা হতে পারত। কিন্তু বিএনপি সেটি করেনি। বিএনপিকে নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের মুলা ঝুলিয়ে রাখা হয়েছিল এবং মুলা দেখে বিএনপি শেষ পর্যন্ত নির্বাচনে যায়নি।

বিএনপি নির্বাচনে না যাওয়াটা কি রাজনৈতিক আন্দোলন না ধোঁকা-এই প্রশ্নই এখন বড় হয়ে এসেছে। অনেকেই মনে করছেন যে, যারা আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রাখতে চায় এবং আগামী পাঁচ বছর নিরবচ্ছিন্নভাবে আওয়ামী লীগ চাপহীনভাবে দেশ পরিচালনা করুক এটা চায়। তারা চাইনি বিএনপি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করুক। সেই মাস্টার প্ল্যানের অংশ হিসেবেই বিএনপিকে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবির পক্ষে তাতিয়ে তোলা হয়েছে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যখন দু বছর আগে থেকে বাংলাদেশে নির্বাচন অর্থবহ অংশগ্রহণমূলক হতে হবে ইত্যাদি বক্তব্যগুলো দিয়েছে তখন বিএনপির কাছে এরকম বার্তা গেছে যে, বিএনপি যদি নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করে তাহলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সেই নির্বাচনকে গ্রহণযোগ্যতা দিবেনা, স্বীকৃতি দেবে না। ফলে সরকারের ওপর নিষেধাজ্ঞা আসবে। ভিসা নিষেধাজ্ঞা সংক্রান্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ঘোষণার পর এটা স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কোন অবস্থাতেই বিএনপি ছাড়া নির্বাচন মেনে নেবে না। এতে আত্মহারা হয়ে বিএনপি নির্বাচনের পরিকল্পনা থেকে নিজেদেরকে পুরোপুরি বিচ্ছিন্ন করে ফেলেছিল।’

তারা মনে করেছিল যে, সরকারের পতন হবেই। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অতিমাত্রা নির্ভরশীল হয়ে তারা সরকার পতনের খোয়াব দেখেছিল। কিন্তু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এই কৌশলটা কি ছিল বিএনপিকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখা কৌশল? বিএনপিকে ধোঁকা দেওয়ার কৌশল? সেটি এখন বিভিন্ন মহলে চর্চা হচ্ছে। এই ধোঁকা যদি সত্যি হয় তাহলে বিএনপির নির্বাচন বর্জন এবং নির্বাচন করার ধোঁকার হ্যাটট্রিক পূর্ণ হল। ২০১৪ সালে বিএনপিকে বলা হয়েছিল যে, তোমরা নির্বাচনে যেও না, তাহলে পরে সরকারের পতন ঘটবে। বিএনপি সে আশায় নির্বাচন বর্জন করেছিল। ওই নির্বাচনে যদি বিএনপি অংশগ্রহণ করতো তাহলেও বিএনপির পরিণতি আজকের মতো হত না। কিন্তু সে সময় বিএনপি পাঁচটি সিটি করপোরেশনের নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পরও ওই নির্বাচন বর্জন করে। ২০১৮ সালে বিএনপি কোন দাবি দাওয়া ছাড়াই ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে গিয়ে নির্বাচন করে দ্বিতীয় ধোঁকা খায়। আর এবার আমেরিকা সরকারকে ক্ষমতা থেকে হটিয়ে দেবে-এমন একটি সাজানো ফাঁদে পা দিয়ে বিএনপি ধোঁকার হ্যাটট্রিক পূর্ণ করল। এখন প্রশ্ন হল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কেন বিএনপিকে ধোঁকা দিল’?

Facebook
Twitter
WhatsApp
Pinterest
Telegram

এই খবরও একই রকমের

গায়েহলুদ অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত ‘মদপানে’, মামা-ভাগনে মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক: মানিকগঞ্জে গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত ‘মদপানে’ দুজনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (২ মার্চ’) রাতে মানিকগঞ্জ কর্নেল মালেক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে এবং মানিকগঞ্জ মুন্নু মেডিকেল

পাকিস্তানের নির্বাচন: আরও বেশি বাংলাদেশ নির্ভর হল যুক্তরাষ্ট্র’

নিজস্ব প্রতিবেদক: পাকিস্তানের নির্বাচনে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যা চেয়েছিল তা পায়নি। স্পষ্টতই সেখানে একটি ঝুলন্ত পার্লামেন্ট গঠিত হবে। পাকিস্তান মুসলিম লীগ এবং পাকিস্তান পিপলস পার্টি জোট

কোরবানির পশুর চামড়ার দাম নির্ধারণ আজ

সচিবের নেতৃত্বে বৈঠক চামড়া সংগ্রহ, সংরক্ষণের ৯ দফা নির্দেশনা আগামী বৃহস্পতিবার (২৯ জুন) অনুষ্ঠিত হবে মুসলিম উম্মাহ দ্বিতীয় ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল আজহা। এ উপলক্ষ্যে

ঈদযাত্রায় সড়কে একই পরিবারের তিনজনসহ ৮ জনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক: ময়মনসিংহে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের তিনজনসহ ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) ময়মনসিংহ সদর, ত্রিশাল ও তারাকান্দা উপজেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় এসব

‘নির্বাচন অবাধ ও নিরপেক্ষ হয়েছে: সিইসি’

ঠিকানা টিভি ডট প্রেস: ময়মনসিংহ ও কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনসহ স্থানীয় সরকারের ২৩১টি নির্বাচন অবাধ ও নিরপেক্ষ হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি’) কাজী

নির্বাচন না মানলে বিএনপির সাথে কোনো সমঝোতা নয়’

নিজস্ব প্রতিবেদক: নির্বাচনের পর পশ্চিমা দেশের কূটনীতিকরা রাজনৈতিক সমঝোতা এবং সহাবস্থানের নীতি অনুসরণের জন্য পরামর্শ দিচ্ছে দুই দলকেই। শুধুমাত্র পশ্চিমা দেশের কূটনীতিকরাই নয়, বরং সুশীল