আপনার জানার ও বিনোদনের ঠিকানা

‘উপজেলাতেও আওয়ামী লীগ বনাম আওয়ামী লীগ’

নিজস্ব প্রতিবেদক: কাগজে কলমে উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেই। আওয়ামী লীগ এই নির্বাচনে দলীয় প্রতীক ব্যবহার করছেন না। নৌকা প্রতীক ছাড়াই আওয়ামী লীগের এমপিরা যে যার মতো করে উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থী দিয়েছেন। ১৫০ টি উপজেলায় প্রথম ধাপে ৮ মে এই নির্বাচনের ভোট অনুষ্ঠিত হবে। আজ মধ্যরাত থেকেই নির্বাচনের প্রচার প্রচারণা বন্ধ হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাচনে প্রথম দফায় যে দেড়শটি উপজেলা নির্বাচন হচ্ছে সেখানে লড়াই হচ্ছে মূলত আওয়ামী লীগ বনাম আওয়ামী লীগের লড়াই। এ সব উপজেলা নির্বাচনে ১৫০ টি উপজেলার মধ্যে ৫৮ টিতে বিএনপির প্রার্থীরা রয়েছেন। তবে একাধিক স্থানে বিএনপিরও একাধিক প্রার্থী রয়েছে। গড়ে প্রতিটি উপজেলায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী তিনজন করে। যেখানে যেখানে নিয়ন্ত্রিত নির্বাচন হচ্ছে অর্থাৎ সমঝোতার মাধ্যমে মন্ত্রী এবং এমপিরা তাদের নিজস্ব ব্যক্তিদেরকে প্রার্থী করেছেন এবং অন্য প্রার্থীদেরকে বসিয়ে দিয়েছেন এরকম প্রায় ৬৭ টি উপজেলায় এবার নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতাহীন হবে বলে মনে করা হচ্ছে’।

তবে বাকি আসনগুলোতে আওয়ামী লীগ বনাম আওয়ামী লীগের লড়াই হবে তীব্র। কোথাও কোথাও এই লড়াই সহিংস রূপ নিয়েছে। উপজেলা নির্বাচনের আগে বিভিন্ন উপজেলায় সহিংসতা দেখা যাচ্ছে। মূলত উপজেলা নির্বাচনে লড়াই হচ্ছে মন্ত্রী-এমপিদের মাইম্যান বনাম আওয়ামী লীগের তৃণমূলের।

প্রথম ধাপে অনুষ্ঠিত বিভিন্ন উপজেলায় আওয়ামী লীগের মন্ত্রী-এমপিরা তাদের মাইম্যানদেরকে নির্বাচিত করার জন্য মাঠে নেমেছেন। যদিও নির্বাচন কমিশন বারবার ঘোষণা করছে যে, মন্ত্রী-এমপিরা নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে পারবেন না বা প্রচারণা চালালে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কিন্তু নির্বাচনের কলকাঠি মন্ত্রী-এমপিরাই নাড়ছেন। তারা এলাকায় যাচ্ছেন না, সরাসরি নির্বাচনে প্রচারণা করছেন না-এটা যেমন সত্য। কিন্তু পাশাপাশি এটাও সত্য যে, তাদের সমর্থক, কর্মী এবং নিজস্ব লোকজনদেরকে তাদের পছন্দের প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার জন্য মাঠে নামিয়েছে। ঢাকায় বসেই মন্ত্রীরা নির্বাচনের তদারকি করছেন, নিশ্চিত করতে চাইছেন যে, নিজের পছন্দের ব্যক্তি যেন জয়ী হয় অন্যদিকে তৃণমূলের জন্য এই নির্বাচন একটি অগ্নিপরীক্ষা। অস্তিত্বের পরীক্ষাও বটে। তৃণমূলের নেতাকর্মীরা মনে করছেন যে, দলের ভিতর যে জমিদারতন্ত্র এবং আধিপত্যবাদ প্রতিষ্ঠিত হয়েছে মন্ত্রীদের মাধ্যমে তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করার একটাই রাস্তা, সেটি হল নির্বাচনে প্রার্থী হওয়া এবং জয়ী করে দেওয়া।

এখন পর্যন্ত নির্বাচনের যে আবহ দেখা যাচ্ছে বিভিন্ন উপজেলায় তাতে প্রশাসন এবং আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী মোটামুটি নিরপেক্ষ অবস্থানে রয়েছে। বিশেষ করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী যেন কারও প্রতি পক্ষপাতিত্ব না করে এজন্য ওপর থেকে কঠোর বার্তা দেওয়া হয়েছে। কোন মন্ত্রী-এমপির বা কোন প্রার্থীর পক্ষে যদি কেউ কাজ করে তাহলে না বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও সাফ ঘোষণা করা হয়েছে। আর একারণ বাস্তবতায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কেউই ঝুঁকি নিতে রাজি হচ্ছেন না। প্রশাসনও নিরপেক্ষ ভাবে দায়িত্ব পালন করছেন। কারণ নির্বাচন কমিশনের নজরদাবি রয়েছে। আর এ কারণেই উপজেলা নির্বাচনে মূল আকর্ষণে পরিণত হয়েছে মন্ত্রী-এমপিদের নিজস্ব লোক নাতি তৃণমূল আওয়ামী লীগ। আর প্রথম ধাপের ফলাফল কী হয় সেটি বুঝা যাবে ৮ মের পর।’

Facebook
Twitter
WhatsApp
Pinterest
Telegram

এই খবরও একই রকমের

লন্ডনে এ কী কাণ্ড ঋতাভরীর!

ফাটাফাটি’ ছবির দুর্দান্ত সাফল্যের পর হাওয়ায় ভাসছেন টলিউড অভিনেত্রী ঋতাভরী চক্রবর্তী। এরপর উড়াল দেন লন্ডনের উদ্দেশে। সেখানে গিয়েই রক্তারক্তি কাণ্ড ঘটিয়ে বসলেন অভিনেত্রী। জানা গেছে,

পাঁচ দিনেও প্রজ্ঞাপন হয়নি নাঈমুল ইসলাম খানের

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রধানমন্ত্রী নতুন প্রেস সচিব হিসেবে নাঈমুল ইসলাম খানের নিযুক্তির কথা চূড়ান্ত। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে গত ২৮ মে এ সংক্রান্ত একটি সারসংক্ষেপ জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে

আপনার ঘুষ খাওয়ার জন্য দেশ স্বাধীন করিনি’

ঠিকানা টিভি ডট প্রেস: ঘূর্ণিঝড় রেমালের কারণে ঝালকাঠি-বরিশাল আঞ্চলিক মহাসড়কের বিভিন্ন এলাকার ১১টি স্থানে ৩৩ হাজার কেভি লাইনের ওপর গাছ পড়ে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়।

কবর দেওয়ার চারদিন পর বৃদ্ধকে জীবিত উদ্ধার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ইউরোপের দেশ মলদোভায় জীবন্ত কবর দেওয়ার চারদিন পরে এক বৃদ্ধকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। গত সোমবার (১৩ মে) দেশটির উতসিয়া অঞ্চল থেকে ৬২ বছর

টিম ইন্ডিয়ার কোচ হতে চান মোদি-অমিত শাহ!

ঠিকানা টিভি ডট প্রেস: ক্রিকেট উন্মাদনার দিক থেকে ভারতকে সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য দেওয়া হয়। কারণ এশিয়ার এই দেশটিতে ক্রিকেট প্রেমীদের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। আর এজন্যই

যারা ঘৃণা করে তাদের অধিকাংশই আমার লেখা পড়েনি: তসলিমা নাসরিন

নির্বাসিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন মাঝেমধ্যেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নানা বিষয়ে নিজের মতামত তুলে ধরেন। কখনো তা সমসাময়িক ঘটনা নিয়ে, কখনো নিতান্তই ব্যক্তিগত। সবশেষ ফেসবুকে দেওয়া এক