আপনার জানার ও বিনোদনের ঠিকানা

আগুনের ঝুঁকিতে গোটা যশোর, কোন ভবনেই মানা হচ্ছে না ফায়ার সেফটি প্লান

জেমস আব্দুর রহিম রানা: অগ্নিকান্ডের ঝুঁকিতে রয়েছে গোটা যশোর। শহরের প্রায় কোন ভবনেই মানা হচ্ছে না ফায়ার সেফটি প্লান। বহুতল ভবন, বাণিজ্যিক সুপার মার্কেট, হোটেল ও রেস্তোরায় নেই কোন ফায়ার সেফটি ব্যবস্থা। ইতিমধ্যে যশোর ফায়ার সার্ভিস কর্তৃপক্ষ শহরের ৭শ’ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও ভবনে অগ্নি নিরাপত্তা ব্যবস্থার জন্য নোটিশ দিয়েছে। কিন্তু তাদের এ নোটিশে কর্ণপাত করছেন না ভবন মালিকসহ ব্যবসায়ীরা।

গত ২৯ ফেব্রুয়ারি রাজধানী ঢাকার বেইলি রোডে গ্রিন কজি কটেজে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। এ ভবনের সাততলা জুড়েই ছিল রেস্তোরা আর উঠানামার একমাত্র সিড়িতে ছিল সারি সারি এলপিজি গ্যাসের সিলিন্ডার। নিচতলার চা চুমুক রেস্তোরার সিড়িতে রাখা এলপিজি সিলিন্ডার লিক করে আগুন ধরে যায়। এতে মুহূর্তে আগুন সিড়িতে রাখা গ্যাস সিলিন্ডারের মাধ্যমে গোটা ভবনে ছড়িয়ে যায়। এসময় নিচে নামতে বা ছাদে উঠতে না পেরে আটকা পড়ে ৪৬ জন নিরীহ নারী, শিশু ও পুরুষ মৃত্যুবরণ করেন। নৃশংসতম এ আগুন ট্রাজেডি ও মৃুত্যর ঘটনা গোটা দেশের মানুষকে নাড়া দিয়েছে।

এ ঘটনার পর থেকে গোটা দেশের প্রশাসন ও ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্স কর্তৃপক্ষ নড়েচড়ে বসেছে। তারা ঢাকাসহ সারাদেশে বহুতল ভবন, বাণিজ্যিক মার্কেট ও রেস্তোরায় অভিযান চালাচ্ছে এবং পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য নোটিশ প্রদান করছে। ইতিমধ্যে ঢাকায় কয়েকটি অপরিকল্পিত রেস্তোরা সিলগালা, মালিক ও ম্যানেজার আটকসহ কারাদণ্ড এবং জরিমানা করা হয়েছে।

এদিকে, যশোর রয়েছে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঝুঁকিতে। শহরের বিভিন্ন বহুতল ভবন, সুপার মার্কেট এবং হোটেল রেস্তোরায় নেই পর্যাপ্ত অগ্নি নির্বাপক ব্যবস্থা। বর্তমান পরিস্থিতিতে খোঁজ নিতে গিয়ে যশোর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স কর্তৃপক্ষের হাতে ধরা পড়েছে এ জাতীয় নানা অনিয়মের চিত্র। শহরের বহুতল প্রায় কোন ভবনে নেই ফায়ার সেফটি প্লান। ঢাকায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের পরও যশোরের বহুতল ভবন মালিক ও ব্যবসায়ীরা এ বিষয়ে কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করছেন না। ফলে তালিকা করে একের পর এক নোটিশ দিয়ে যাচ্ছেন যশোর ফায়ার সার্ভিস কর্তৃপক্ষ।

যশোর ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা যায়, বর্তমানে অগ্নি নিরাপত্তা ঝুঁকিতে রয়েছে যশোর শহরের ৬৯২টি ভবন ও ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান। এরমধ্যে বিভিন্ন ভবনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে ৮৭ টি, হোটেল ও রেস্তোরা রয়েছে ৫৫টি, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার, ফার্মেসিসহ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে ৫০৫টি এবং ঝুকিঁপূর্ণ বহুতল ভবন রয়েছে ৪৫টি। এসব ভবন, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, মার্কেটগুলোতে ইতিমধ্যে ফায়ার সার্ভিস বিভাগ থেকে নোটিশ পাঠানো হয়েছে। একইসাথে ভবন মালিক কর্তৃপক্ষ পরবর্তী কি ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে সে বিষয়ে খোঁজ নিচ্ছে ও ঝুঁকিপূর্ণ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এবং ভবনের নতুন তালিকা করা হচ্ছে।’

ফায়ার সার্ভিসের নোটিশের অগ্নি ঝুঁকিপূর্ণ তালিকায় রয়েছে, যশোর আইটি পার্ক ভবন, হোটেল জাবির যশোর, হোটেল ওরিয়ন, হোটেল হাসান, নিটল নিলয় আর্কেড, জেনেসিস হসপিটাল, সানোয়ার টাওয়ার, ইবনে সিনা হাসপাতাল, নোভা মেডিকেল সেন্টার, পঙ্গু হাসপাতাল, বিসিএমসি কলেজ, লিবার্টি টাওয়ার, নওরিন টাওয়ার, সিভকন টাওয়ার, ইকবাল মঞ্জিল, হোটেল নয়ন আবাসিক, ড্রিমজ আলাউদ্দীন টাওয়ার, রনন টাওয়ার, শুভেচ্ছা ফেব্রিকসহ অর্ধশতাধিক স্থাপনা। এসব স্থাপনায় ফায়ার সার্ভিস কর্তৃপক্ষ বার বার তাগিদ দেয়ার পরও মালিক কর্তৃপক্ষ ভবনগুলোতে অগ্নি নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করছেন না বলে অভিযোগ উঠেছে।

এছাড়া, শহরের হোটেল রেস্তোরাগুলোর অবস্থা আরো বেহাল। তারা রীতিমত আগুনের পাশে এলপিজি গ্যাস সিলিন্ডার নিয়েই খেলা করছে। হোটেলে প্রবেশের মুখেই তারা রান্নার ব্যবস্থা রেখেছে ও চুলোর পাশেই রাখছে এলপিজি সিলিন্ডার। যা মানুষকে চরম ঝুঁকির মধ্যে ফেলেছে। শহরের এমকে রোডের পাঁচ ফোঁড়ন হোটেল, স্টার হোটেল, ভৈরব ও নিউ ভৈরব হোটেলে প্রবেশ মুখেই বড় বড় এলপিজি গ্যাসের সিলিন্ডার সাজিয়ে রেখে চুলায় রান্না করা হচ্ছে। একই অবস্থা বিরাজ করছে অন্যান্য চাইনিজ ও মিনি চাইনিজ হোটেলে। এসব হোটেলগুলোতে অগ্নি নিরাপত্তার কোন বালাই নেই বলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

এসব বিষয়ে যশোর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ সহকারী পরিচালক সোহেল রানা বলেছেন, তারা যশোর শহরের ৬৯২টি ভবন ও প্রতিষ্ঠান ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহিৃত করে বার বার নোটিশ দিলেও মালিক পক্ষ তাতে কর্ণপাত করছেন না। এ বিষয়ে তারা দ্রুতই আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন বলে জানান।’

এ ব্যাপারে যশোর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সে সহকারী পরিচালক মামুনুর রশিদ বলেন, দেশের সব ধরণের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ফায়ার লাইসেন্স বাধ্যতামূলক থাকতে হবে। অথচ এ নিয়ম মানছেন না যশোরের অনেকেই। এছাড়া বহুতল ভবনে ফায়ার লাইসেন্স, ফায়ার পাম্প ও পানির রিজার্ভ থাকতে হবে। যেটা এই শহরে মানা হচ্ছে না। এসব ভবন মালিকদের নোটিশ দেয়া হয়েছে, অচিরেই তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। অগ্নিকান্ড প্রতিরোধে যশোর শহরে তারা সব ধরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে জানান।

Facebook
Twitter
WhatsApp
Pinterest
Telegram

এই খবরও একই রকমের

টাঙ্গাইলে দুই মোটরসাইলের সংঘর্ষে নিহত দুই

জহুরুল ইসলাম, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি: টাঙ্গাইল-জামালপুর আঞ্চলিক মহাসড়কে মধুপুর উপজেলার নেকিবাড়ী এলাকায় শনিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে দুইটি মোটরসাইলের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুইজন নিহত ও একজন আহত হয়েছে।

খালেদা জিয়ার স্থায়ী মুক্তির বিষয়ে যা জানালেন আইনমন্ত্রী’

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে বিদেশ নিতে আবেদন করেছেন তার ভাই শামীম ইস্কাদার। পরে খালেদা জিয়ার একান্ত সচিব এ বি এম সাত্তার আবেদনের

রাশিয়ায় আবারও নিষেধাজ্ঞা দিলো যুক্তরাষ্ট্র’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: রাশিয়ার কাছে উত্তর কোরিয়ার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র হস্তান্তর ও পরীক্ষার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে রুশ তিনটি প্রতিষ্ঠান এবং এক ব্যক্তির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে

‘মদের দোকান চালু করবে সৌদি আরব’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: কয়েক দশকের কঠোর নিষেধাজ্ঞা ভেঙে প্রথমবারের মতো মদের দোকান চালু করতে যাচ্ছে সৌদি আরব। তবে এটি চালু করা হচ্ছে শুধু অমুসলিম কূনীতিকদের জন্য।

পাবনার ঈশ্বরদী তে মাটির পুতুল পোড়াতে গিয়ে দগ্ধ হয়ে রিয়া (১৩)নামের কিশোরীর মৃত্যু 

মোঃ রাজিব আলি পাবনা প্রতিনিধি : চাকরিতে যান বাবা।। গেটে তালা দিয়ে বাইরে যান মা। এমন ও ত অবস্থায় বাড়িতে একা থাকে রিয়াএবং তার ৫

ওমানে বাংলাদেশি তরুণের আত্মহত্যা’

ঠিকানা টিভি ডট প্রেস: ওমানের মাস্কাটে এক বাংলাদেশি তরুণ আত্মহত্যা করেছেন। তার বাড়ি নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে। স্থানীয় সময় শনিবার (২০ জানুয়ারি’) ভোরে ওমানের মাস্কাট শহরে এ