আপনার জানার ও বিনোদনের ঠিকানা

লাশ দেখে উচ্চৈঃস্বরে কান্নাকাটি নিষিদ্ধ

আমাদের দেশে অনেকেই বলেন, মৃত স্ত্রীকে স্বামী আর মৃত স্বামীকে স্ত্রী দেখতে পারেন না। অথচ শরিয়তে এর কোনো ভিত্তি নেই। অন্যদিকে মৃত পুরুষ হোক অথবা মহিলা হোক সমাজের সমস্ত মাহরাম, গায়রে মাহরাম সবাই দেখে থাকে। এমনকি জানাজার পরও কাফন খুলে মুখ দেখানো হয়, আর স্বজনের লাশ দেখে কান্নাকাটি করে হা-হুতাশ করা হয়। অথচ শরিয়তে হা-হুতাশ এবং উচ্চৈঃস্বরে কান্নাকাটিকে হারাম করা হয়েছে। 

যারা এরূপ করে তাদের বেলায় রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের শাফায়াত থেকে বঞ্চিত হয়ে যাওয়ার চরম আশঙ্কা রয়েছে। এসব কিছু হচ্ছে মূর্খতা এবং দীনি ইলম থেকে অজ্ঞতার অনিবার্য ফল। মৃত ব্যক্তিটি যদি জাহান্নামি হয় তবে সমগ্র সৃষ্টি তার প্রতি অভিশাপ করে। নাপাকির দুর্গন্ধে যেমন পরিবেশ দূষিত হয়, বাতাসে দুর্গন্ধ ছড়ায় তেমনি আওয়াজ ও কথাবার্তারও স্থূলতা আছে। এ কারণেই কথাবার্তা ক্যাসেট করা সম্ভব হয়। ওই অভিশাপ নাপাকির মতো দুর্গন্ধ ছড়ায় এবং পরিবেশ বিষাক্ত করে ফেলে। এজন্যই তাড়াতাড়ি দাফন কাজ সমাপ্ত করে পরিবেশকে মুক্তকরণের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। জানাজা সামনে রেখে এরূপ বলতে শোনা যায় যে, ‘লোকটি কেমন ছিল?’ এর জবাবে লোকেরা বলে, ‘খুবই ভালো ছিল।’ এতে ধারণা করা হয় লোকটি নাজাত পেয়ে যাবে। যদি এরূপ ধারণা সঠিক হয় তাহলে আর আমল করার কী প্রয়োজন? এরূপ করলেই তো চলে! শরিয়তে এর কোনো ভিত্তি নেই। বরং মৃত ব্যক্তির শত্রু এবং তার প্রতি অসন্তুষ্ট লোকেরা এর জবাবে বলে, ‘লোকটি অত্যন্ত কপট এবং জঘন্য চরিত্রের অধিকারী ছিল।’ এটা নিছক ধারণা নয়; বরং লোকেরা এরূপ করে বলে অনেকেই আমাকে জানিয়েছেন। 

যারা এরূপ করে তারা বুখারির একটি হাদিস পেশ করে থাকে, রসুলের সামনে এরূপ করা হয়েছে। অথচ নিম্নোক্ত কারণে এ হাদিসের দ্বারা এরূপ উক্তি করা সঠিক নয়। জানাজা সামনে নিয়ে রসুল এমন উক্তি করেননি। অথচ বর্তমানে জানাজা সামনে নিয়ে এরূপ উক্তি করা হয়। রসুল ওহির মাধ্যমে অবগত হয়ে একজন সম্পর্কে জান্নাতি আর একজন সম্পর্কে জাহান্নামি হওয়ার খবর দিয়েছিলেন। তাদের একজন ছিল নেক্কার, অন্যজন পাপাচারী। বর্তমানে না জেনে, না শুনে নেক্কার ও পাপাচারী সবার জন্যই এরূপ করা হয়।

সাহাবিরা আল্লাহ ও তাঁর রসুলের অত্যন্ত প্রিয় এবং উচ্চ মর্যাদার অধিকারী ছিলেন। তাঁরা শরিয়তের মাপকাঠি ও মেরুদন্ড। তাই তাঁদের ব্যাপারটি স্বতন্ত্র। অন্য কারও জন্য এরূপ করার সুযোগ নেই। রহমাতুল্লিল আলামিন তায়েফের ময়দানে রক্তাক্ত হয়েছেন, প্রস্তরাঘাতে তাঁর সমস্ত শরীর ক্ষতবিক্ষত হয়েছে। খোদা-ই পরোয়ানা নিয়ে তায়েফবাসীদের খতম করে দেওয়ার জন্য ফেরেশতারা নবীর দরবারে প্রার্থনা করে ব্যর্থ হয়েছেন। 

বিশ্বনবী কেবল তাদের প্রতি ক্ষমা ঘোষণা করেই ক্ষান্ত হননি, বরং আল্লাহর দরবারে তাদের জন্য হেদায়াত এবং ক্ষমা প্রদর্শনের মুনাজাতও অব্যাহত রেখেছেন। কাফিরদের আঘাতে ওহুদের ময়দানে বিশ্বনবীর দেহ ক্ষতবিক্ষত হয়েছে, কাফিরদের প্রচন্ড আঘাতে নবীর শির ফেটে আল্লাহর জমিনে রক্ত ঝরেছে, দাঁত শহীদ হয়েছে, এর পরও তিনি তাদের প্রতি ক্ষমাসুলভ আচরণ করে ক্ষমার নজিরবিহীন আদর্শ কায়েম করেছেন। 

সাহাবিদের জীবনেও নবীর অনুকরণ-অনুসরণের অনুরূপ আদর্শই ফুটে উঠেছে। ফলে তাঁরা বিশ্ববিজয়ী হিসেবে অমর হয়ে আছেন। আমাদের একই আদর্শে আদর্শবান হওয়া উচিত। বিজাতীয় তরিকার কর্মকান্ড পরিহার করে সাহাবিদের পদাঙ্ক অনুসরণকেই পাথেয় হিসেবে গ্রহণ করা প্রয়োজন। এর ভিতরেই রয়েছে শান্তি, মুক্তি এবং মুসলিম উম্মাহর সফলতা ও বিজয়।

লেখক : আমির, আল হাইআতুল উলয়া ও বেফাকুল মাদারিসিল আরাবিয়া বাংলাদেশ।

Facebook
Twitter
WhatsApp
Pinterest
Telegram

এই খবরও একই রকমের

বিএনপির কাউন্সিল নিয়ে বেগম জিয়া-তারেকের দুই মত

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিএনপির কাউন্সিল হবে কি হবে না-এই নিয়ে বেগম খালেদা জিয়া এবং তারেক জিয়ার মধ্যে প্রকাশ্য বিরোধ দেখা দিয়েছে। বিএনপির একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র এ

আইএমএফের চাপে এমপিদের শুল্কমুক্ত গাড়ি সুবিধা বাতিলের চিন্তায় এনবিআর

নিজস্ব প্রতিবেদক: নির্বাচিত হওয়ার পর কোনোরকম শুল্ক ছাড়াই বিদেশ থেকে গাড়ি আমদানি করতে পারেন সংসদ সদস্যরা। তবে এবার আইনপ্রণেতাদের এমন সুবিধা বাতিলের চিন্তা করছে জাতীয়

‘সীমান্তে মৃত্যুর ঘটনা হত্যাকাণ্ড নয়, দুর্ঘটনা’’

নিজস্ব প্রতিবেদক: সীমান্তে মৃত্যুর ঘটনা হত্যাকাণ্ড নয় মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব.) তারিক আহমেদ সিদ্দিক বলেছেন, সীমান্তে হত্যাকাণ্ড পরিকল্পিত কিছু না। এটি

পশ্চিমা দেশগুলো বিএনপিকে ‘অপেক্ষা’ করতে বলেছে’

নিজস্ব প্রতিবেদক: নতুন করে সরকার বিরোধী আন্দোলনের যে পরিকল্পনা বিএনপি নিয়েছে তাতে পশ্চিমা দেশগুলোর সম্মতি নেই। বরং পশ্চিমা দেশগুলো বিএনপিকে ধৈর্য ধরা এবং অপেক্ষা করার

এমপিরা উপজেলা নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করতে পারবে না: কাদের’

ঠিকানা টিভি ডট প্রেস: এমপিরা উপজেলা নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করতে পারবে না বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। শনিবার (৩০ মার্চ’) দুপুরে

সবগুলো ইসরায়েলি ড্রোন গুঁড়িয়ে দিল ইরান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: প্রথমবারের মতো ইরানে সরাসরি হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) ভোরে দেশটির গুরুত্বপূর্ণ পরমাণু ও সামরিক ঘাঁটির শহর ইসফাহানে বিস্ফোরণের শব্দ শোনা গেছে।