আজ বৃহস্পতিবার ,৩০শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৬ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১লা জিলহজ, ১৪৪৩ হিজরি (বর্ষাকাল)

রাত ৪:৪৭

রূপপুর প্রকল্পে দশ দিনে ৫ রুশ নাগরিকের মৃত্যু

- Advertisement -
- Advertisement -

পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রকল্পে কর্মরত এক রুশ নাগরিকের মৃত্যু হয়েছে। রোববার বিকেলে ভরতনিকভ আলেকজান্ডার (৪৫) নামে ওই ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ নিয়ে গত ১০ দিনে রূপপুর প্রকল্পে ৫ রাশিয়ান নাগরিকের মৃত্যু হলো।

রোববার (৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে রূপপুরে বিদেশিদের আবাসন প্রকল্প গ্রিনসিটির বহুতল ভবনের একটি কক্ষ থেকে ওই রুশ নাগরিকের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। মৃত আলেকজান্ডার বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রকল্পের ‘নিকিম অ্যাটোমস্ট্রয়’ নামে একটি প্রতিষ্ঠানে কাজ করতেন।

পুলিশ জানায়, বিদেশি পাসপোর্টধারী ওই রুশ নাগরিক গ্রিনসিটি আবাসিক এলাকার ১৫ নম্বর বিল্ডিংয়ের ষষ্ঠ তলার একটি কক্ষে থাকতেন। রোববার কাজে না যাওয়ায় পাশের কক্ষের একজন তাকে খুঁজতে এসে দেখেন আলেকজান্ডার খাটের ওপর অচেতন অবস্থায় পড়ে আছেন। তিনি প্রকল্প সংশ্লিষ্টদের খবর দেন। বিকেলে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে।

মৃত আলেকজান্ডার নিয়মিত জিম করতেন। তার কক্ষ থেকে ভেষজ কিছু খাবার উদ্ধার করা হয়েছে। এই ভেষজ খাবারগুলো রাশিয়া থেকে আনা বলে জানা গেছে।

ঈশ্বরদী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আসাদুজ্জামান আসাদ ঢাকা পোস্টকে বলেন, গত ১০ দিনে রূপপুর প্রকল্পের পাঁচ রুশ নাগরিকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এসব মরদেহের ময়নাতদন্ত রিপোর্টে তেমন কিছু পাওয়া যায়নি। শুধু একজনের ক্ষেত্রে মাদকের সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেছে। অন্যদের রিপোর্টে হৃদরোগের কথা বলা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, রোববার মারা যাওয়া রুশ নাগরিক আলেকজান্ডারের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ২৮ জানুয়ারি ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় রাশিয়ান নাগরিক বারচেনকো আলেক্সেইয়ের। এরপর ২ ফেব্রুয়ারি শাকিরভ আলেক্সেইয়ের (৪০) নামে আরেকজনের মৃত্যু হয় ঘুমের মধ্যে।

এ ছাড়া গতকাল (৫ ফেব্রুয়ারি) মারা যান ২ রাশিয়ান নাগরিক। এদের একজনের নাম ইঞ্জিনিয়ার চুকিন পাভেল (৪৮)। তিনি ট্রেস্ট রোসেম নামে রাশিয়ান সাব-ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার ছিলেন। আরেকজনের নাম তলমাসেফ ভাইয়াসেলভের (৫৯)। তিনি এসএমইউ-১ নামে আরেকটি সাব-ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের ইন্সটলার ছিলেন। চুকিন পাভেল অসুস্থ হয়ে এবং তলমাসেফ ১৪ তলা থেকে নামার সময় পড়ে গিয়ে মারা যান বলে জানান প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা।

- Advertisement -

সর্বশেষ খবরঃ

- Advertisement -

আপনার জন্য আরো খবর

উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে