আপনার জানার ও বিনোদনের ঠিকানা

পানির জন্য হাহাকার: যশোরে ২৪ হাজার নলকূপ অকেজো

জেমস আব্দুর রহিম রানা: যশোরের পানির জন্য হোক হাহাকার তৈরি হয়েছে। এক লিটার সুপেয় পানি সংগ্রহ করতে যেতে হচ্ছে এক কিলোমিটার দূরে। তবু মিলছে না পানি। পারিবারিক কাজে ব্যবহৃত পানিও মিলছে না পৌরসভা কর্তৃপক্ষ থেকেও। পর্যাপ্ত বৃষ্টির অভাব, প্রতিটি বাড়িতে অপরিকল্পিতভাবে গভীর-অগভীর নলকূপ স্থাপন ও এ অঞ্চলের নদনদী গুলো শুকিয়ে যাওয়ায় এ পরিস্থিতি ক্রমশ অবনতির দিকে যাচ্ছে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।

সাধারণত বাংলা ফাল্গুন মাসের মাঝামাঝি থেকে শুরু হয়ে চৈত্র মাসে ভূ-গর্ভস্থ পানির স্তর নিচে নেমে দেশের বিভিন্ন স্থানে পানি সংকট তৈরি হয়।

তবে এবছর মাঘ মাসের শুরুতেই যশোরের অধিকাংশ স্থানে পানির স্তর ৫০ থেকে ৬০ ফুট নিচে নেমে গেছে। এ অবস্থায় বর্তমানে শুধু যশোর শহরেই ৮ হাজারেরও বেশি নলকূপে পানি উঠছে না। জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের হিসাব অনুযায়ী যশোরে মোট অগভীর নলকূপের সংখ্যা ২৪ হাজার ৩২৩টি। যার ৯৫ শতাংশ দিয়ে পানি তোলা যাচ্ছে না। ফলে অকেজো হয়ে পড়ে রয়েছে এসব নলকূপগুলো।

এমনিতে এ অঞ্চলে ভূ-গর্ভস্থ পানির স্তর ২৬ ফুটের নিচে নামলে এখানকার নলকূপগুলো দিয়ে পানি ওঠে না। পর্যাপ্ত বৃষ্টির অভাব, প্রতিটি বাড়িতে অপরিকল্পিতভাবে গভীর-অগভীর নলকূপ স্থাপন ও এ অঞ্চলের নদনদী গুলো শুকিয়ে যাওয়ায় এ পরিস্থিতি ক্রমশ অবনতির দিকে যাচ্ছে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।

তবে কৃষি সম্প্রষারণ অধিদফতর ও বিএডিসি সেচ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুর রশিদ প্রতিদিনের বাংলাদেশকে বলেন, জেলার ৮ উপজেলায় প্রায় ৮১ হাজার গভীর ও অগভীর নলকূপ রয়েছে। এর বাইরে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতর, এলজিইডি, পৌরসভার আওতায় আরও প্রায় ৫০ হাজার হাজার গভীর-অগভীর নলকূপ রয়েছে। অপরিকল্পিতভাবে এসব টিউবওয়েল ও সাবমারসিবল স্থাপনের কারণে পানির স্তর নিচে নেমে গেছে। তাছাড়া প্রচন্ড তাপদহ ও নদনদীর পানি শুকিয়ে যাওয়ায় পানির স্তর অনেক নিচে নেমে যাওয়ায় যশোর অঞ্চলে পানির জন্য হাহাকার তৈরি হয়েছে।

যশোর ডাইলমিল এলাকার নাসিমা বেগম বলেন, গত দুই মাস ধরে যশোর পৌরসভার সাপ্লাইয়ের পানি থাকে না বললেই চলে। আশেপাশের বাড়ির পানি ব্যবহার করে কোনরকম পারিবারিক কাজ চালাচ্ছিলাম। কিন্তু গত দেড় মাস ধরে সেই টিউবয়েলের পানি আর উঠছে না। বাসা থেকে কিছু দূরে নতুন একটা গভীর টিউবওয়েল বসিয়েছে নূর নবী নামে এক ব্যক্তি। সেই গভীর টিউবওয়েলটিতে প্রথমদিকে ভালো পানি উঠলেও সেটাও এখন আর ভালো পানি উঠছে না। আশপাশের একশ ঘর লোকের ওই টিউবওয়েলটি এখন একমাত্র ভরসা বলে তিনি জানান।

রায়পাড়া এলাকার স্বপ্না দাস নামে এক গৃহবধূ বলেন, দূরে এক ব্যক্তির সাবমারসিবল থেকে খাওয়ার পানি তো যেমনি-সেমনি জোগাড় করছি। কিন্তু কাপড়, থালাবাসন ধোয়া, রান্নাবান্না করতে যে পানি দরকার তা মিলছে না। পৌরসভা কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে তেমন গুরুত্ব দিচ্ছে না। দিনে যদি একবার হলেও গাড়ির মাধ্যমে পানি সরবরাহ করা হতো তা হল কোন রকম জীবন বেঁচে যেতে বলে জানান এ নারী। যশোর শহরের নাসিমা ও স্বপ্না রানী শুধু নয়, যশোরের বিভিন্ন প্রান্তের শত শত মানুষের সাথে কথা বলে জানা গেছে প্রতিটি এলাকার একই দসা। কোথাও কোন পানি নাই। পানির জন্য জীবন ওষ্ঠাগত।

নলকূপ মিস্ত্রি আব্দুল মালেক জানান, জানুয়ারী মাস থেকেই পানির লেয়ার নামতে শুরু করেছে। ৩২ থেকে ৩৬ ফুট পর্যন্ত লেয়ার নেমে গেছে। এখন টিউবওয়েলগুলোতে পানি উঠছে না। যে কারণে অধিকাংশ মানুষই সাবমার্সিবল বসাচ্ছে। এ জন্য এখন কাজের চাপও অনেক বেশি। প্রতিদিন ৪-৫টি করে সাবমার্সিবল বসানোর কাজ করছি।

বিষয়টি নিয়ে যশোর জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. জাহিদ পারভেজের মুঠোফোনে দফায় দফায় সংযোগ দিলেও তিনি তার ফোনটি রিসিভ করেননি।

ভূগর্ভস্থ পানির স্তর নিচে নেমে যাওয়া ও জনদুর্ভোগ থেকে পরিত্রাণের উপায় জানতে চাইলে যশোর পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী (পানি) বিএম কামাল আহম্মেদ বলেন, যশোর শহরে পৌরসভার গভীর নলকূপ রয়েছে ২৯টি। আর পাম্প রয়েছে ৫০০টি। এর বাইরেও প্রায় প্রতিটি বাড়িতে টিউবওয়েল, সাবমর্সিবল পাম্পের সংখ্যা রয়েছে প্রায় চার থেকে পাঁচ হাজার। অপরিকল্পিতভাবে এসব টিউবওয়েল ও সাবমারসিবল স্থাপনের কারণে শহরের ভিতরে পানির স্তর অনেক আগেই নেমে গেছে। ফলে ইতিমধ্যে প্রায় ৯৫ শতাংশ টিউবওয়েল ও সাবমারসিবলে পানি ওঠা বন্ধ হয়ে গেছে। আষাঢ়-শ্রাবণ মাস আসলে পানির ভূগর্ভের স্তর আগে নেয় ফিরে পাওয়া যাবে। তখন আর কারো পানির জন্য সমস্যা হবে না বলে জানান এ কর্মকর্তা।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক সুশান্ত কুমার তরফদারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, চলতি মৌসুমে যশোরে ১ লাখ ৬০ হাজার ৭শ’ ৮৫ হেক্টর জমিতে বোরো আবাদ করা হয়েছে। অন্য বছরে বোরোর আবাদের আগে সামান্য বৃষ্টিপাত হলেও এবছর এখনো সেই পরিমাণের বৃষ্টির দেখা মেলেনি। ফলে এসব আবাদি ফসলি জমিতে ডিবটিওয়ালের মাধ্যমে পানি সেচ প্রদান করা হয়েছে। যে কারণে ভূগর্ভস্থের পানির উপরে স্তর প্রায় শেষ হয়ে গেছে। পানের নিম্নস্তরের যতটুক আছে সেটা টিউবয়েল ও সাবমারসেবলে তোলা সম্ভব নয়। তাছাড়া পানি কিভাবে ব্যবহার করতে হবে সে বিষয়ে আমাদের মাঠকর্মীরা সর্বদা কৃষকদের পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছে। যাতে করে কৃষিতে কোন রকম পানি অপচয় না।

দৈনন্দিন জীবনে পানি সংকট ও সুপায়ী ও পানির অভাব মানব জীবনের কি প্রভাব ফেলতে পারে তা জানতে চাইলে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগের ডিন অধ্যাপক ড. সাইদু রহমান মোল্লার বলেন, পানির স্তরের এ অবনমন অ্যালার্মিং এবং এ অবস্থা অব্যাহত থাকলে ফসল উৎপাদনে প্রভাব পড়বে। পানিতে লবণের পরিমাণ বৃদ্ধিসহ পরিবেশ বির্পযয়ের শঙ্কা রয়েছে। সারফেস লেয়ারে পানি না থাকায় দৈনন্দিন প্রয়োজন মেটাতে এখন সবাই ভূগর্ভস্থ পানি উত্তোলন করছে। এতে পানির সঙ্গে বিভিন্ন মেটাল উঠে আসছে। তা মাটিতে মিশে যাচ্ছে। এটা টক্সিস রূপে কাজ করছে। সয়েলের স্ট্র্যাকচার ভেঙে যাচ্ছে। এতে সয়েলের লাইফ লস হচ্ছে। এভাবে চলতে থাকলে কৃষি উৎপাদন আস্তে আস্তে হ্রাস পাবে। সেই সঙ্গে পরিবেশ বিপর্যয়ও ঘটবে। পানিতে বিভিন্ন ধরনের মেটাল মানবদেহের ছড়িয়ে পড়ছে। এর ফলে মানুষ বিভিন্ন রোগ ব্যাধিতে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বাড়ছে বলে জানান এ গবেষক।

Facebook
Twitter
WhatsApp
Pinterest
Telegram

এই খবরও একই রকমের

হোটেল-রেস্তোরাঁয় মূল্যছাড় পাবেন পুলিশ সদস্যরা

ঠিকানা টিভি ডট প্রেস: বিভিন্ন আবাসিক হোটেলে থাকা এবং রেস্তোরাঁয় খাওয়ার ওপর বিশেষ মূল্যছাড় পাবেন পুলিশ সদস্যরা। ট্যুরিস্ট পুলিশের ঢাকা অঞ্চলের আওতাধীন আবাসিক হোটেল ও

রাশিয়ায় আবারও নিষেধাজ্ঞা দিলো যুক্তরাষ্ট্র’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: রাশিয়ার কাছে উত্তর কোরিয়ার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র হস্তান্তর ও পরীক্ষার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে রুশ তিনটি প্রতিষ্ঠান এবং এক ব্যক্তির ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে

যুক্তরাষ্ট্রে মিউজিক ফেস্টিভালে বন্দুক হামলা:আহত ৫

যুক্তরাষ্ট্রের একটি মিউজিক ফেস্টিভালে বন্দুক হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে কমপক্ষে দুজন নিহত এবং আরও তিনজন আহত হয়েছে। হামলাকারী নিজেও আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। স্থানীয়

কলম্বিয়ায় সামরিক হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত, ৯ সৈন্য নিহত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: দক্ষিণ আমেরিকার দেশ কলম্বিয়ায় সামরিক হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে দেশটির ৯ সৈন্য নিহত হয়েছেন। সোমবার (২৯ এপ্রিল) দেশটির উত্তরাঞ্চলে সেনা সদস্যদের বহনকারী এই হেলিকপ্টারটি

বেলকুচিতে বিদেশ যেতে না পেরে যুবকের আত্মহত্যা

সবুজ সরকার বেলকুচি (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে বিদেশ না যেতে পেরে পরিবারের সাথে অভিমান করে হযরত আলী (২৫) নামের এক যুবক গলায় ফাঁশ দিয়ে আত্মহত্যা

অর্থনৈতিক সংকট বিপৎসীমা অতিক্রম করছে

নিজস্ব প্রতিবেদক: ক্রমশ তীব্র হচ্ছে অর্থনৈতিক সংকট। এক লাফে ডলারের দাম ৭ টাকা বৃদ্ধি, ব্যাংক ঋণের সুদের হার বাজারের ওপর ছেড়ে দেওয়া সহ বিভিন্ন সিদ্ধান্ত