আজ বৃহস্পতিবার ,১৮ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ৩রা ভাদ্র, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২০শে মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি (শরৎকাল)

বিকাল ৫:৪১

পদ্মা সেতুর আয়ের হিসাব করতে না পারায় স্ত্রীকে মারধর

- Advertisement -
- Advertisement -

চট্টগ্রামের রাউজানে যৌতুকের টাকা না পেয়ে মো. আলমগীর তালুকদার (৫০) নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে তার স্ত্রী তাওহিদুন্নেসাকে (২৫) নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে।

গত রোববার (৩ জুলাই) বিকেল সাড়ে ৩টা পর্যন্ত নির্যাতিত গৃহবধূ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ২৬ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন ছিলেন। তবে কবে হাসপাতাল ছাড়বেন, তা জানা নেই তার।

জানা গেছে, গত মঙ্গলবার (২৮ জুন) সকাল ১০টায় রাউজান উপজেলার বাগোয়ান ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডে যৌতুকের টাকার জন্য তাওহিদুন্নেসাকে মারধর করেন তার স্বামী আলমগীর তালুকদার। তার আর্তচিৎকারে এলাকার লোকজন গিয়ে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান। এর মধ্যে থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে তিনি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

নির্যাতনের শিকার তাওহিদুন্নেসার বাবা মোস্তাক আহমেদ বলেন, যৌতুকের টাকার জন্য আমার মেয়েকে চরম নির্যাতন করা হয়েছে। কী করব কিছুই বুঝতে পারছি না।

অভিযুক্ত স্বামী মো. আলমগীর তালুকদার আরটিভি নিউজকে জানিয়েছেন, যৌতুকের জন্য আমার স্ত্রীকে মারধর করিনি। মূলত, বিয়ের সময় আমার স্ত্রী এইচএসসি পাস বলে জানিয়েছিল আমার শ্বশুরবাড়ি থেকে। কৌতূহলবশত স্ত্রী তাওহিদুন্নেসাকে পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের পর প্রথম দিনে আদায়কৃত টাকার উপর ভিত্তি করে পুরো বছর আয় কত হবে তা বের করতে বলেছিলাম। কিন্তু সে কোনো হিসাব করতে পারেনি। যোগ-বিয়োগ, গুণ-ভাগ কিছুই জানে না। মূলত, পদ্মা সেতুর টোল আদায়ের বাৎসরিক হিসাব বের করতে না পারায় মারধর করেছি।

রাউজান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল্লাহ আল হারুন বলেন, স্বামী কর্তৃক স্ত্রী নির্যাতনের বিষয়ে কেউ অভিযোগ করেনি। এরপরও আমি খোঁজ নিয়ে পরে জানাচ্ছি।

উল্লেখ্য, ৪ বছর আগে রাউজান উপজেলায় বাগোয়ান ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ড উত্তর গশ্চির প্রয়াত সালেহ আহম্মদ তালুকদারের ছেলে মো. আলমগীর তালুকদারের সঙ্গে বাশঁখালী উপজেলার উত্তর জলদী গ্রামের মোস্তাক আহম্মদের মেয়ে তাওহিদুন্নেসার বিয়ে হয়। তাদের এক ছেলে সন্তান রয়েছে।

- Advertisement -

সর্বশেষ খবরঃ

- Advertisement -

আপনার জন্য আরো খবর

উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে