আজ বৃহস্পতিবার ,৩০শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৬ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১লা জিলহজ, ১৪৪৩ হিজরি (বর্ষাকাল)

রাত ৪:৩৬

‘ঢিলেঢালা’ হরতালে রাজধানীতে তীব্র যানজট

- Advertisement -
- Advertisement -

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে বাম গণতান্ত্রিক জোটের ডাকা অর্ধদিবস হরতালে রাজধানীর বাড্ডা, রামপুরা ও মালিবাগসহ বিভিন্ন এলাকার সড়কে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়েছে। গন্তব্যে যেতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হচ্ছে যাত্রীদের।

সোমবার সকালে সরেজমিনে এসব এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, রাস্তায় রিকশা, বাস, প্রাইভেটকার চলাচল স্বাভাবিক দিনের মতোই। সড়কে গাড়ির চাপ তীব্র। পল্টন ও শাহবাগ মোড় ছাড়া হরতালের প্রভাব কোথাও তেমন দেখা যায়নি।

রাজধানীর মালিবাগ, রামপুরা, বাড্ডা এলাকা হয়ে উত্তরাগামী সড়কে ঘণ্টার পর ঘণ্টা যানজটে অপেক্ষা করতে হয় অফিসগামীদের। এতে তারা তীব্র ভোগান্তিতে পড়েন। সড়কে যানগুলো একের পেছনে একে যেন ঠেস দিয়ে রয়েছে।

কারওয়ান বাজার থেকে সবজি নিয়ে বাড্ডায় আসা ব্যবসায়ী আনিসুজ্জামান ঢাকা পোস্টকে বলেন, শুনেছি হরতাল চলছে। তবে সড়কে তো কিছু দেখলাম না। সব তো স্বাভাবিক। আজ যেন যানজট বেশি।

রাজধানীর উত্তরা থেকে পোস্তগোলাগামী রাইদা পরিবহনের চালক রিপন শেখ ঢাকা পোস্টকে বলেন, আজ শুনেছি হরতাল। কিন্তু রাস্তায় তো কোনো আলামত তো দেখিছি না। গণপরিবহন চলছে, মানুষ স্বাভাবিক নিয়মেই অফিস-আদালতে যাচ্ছে।

আকাশ পরিবহনের যাত্রী রাশেদুল ইসলাম কুতুব ঢাকা পোস্টকে বলেন, জিনিস পত্রের দাম বাড়ায় আজ শুনেছি আধা বেলা হরতাল ডেকেছে বাম দল। আমার অফিস খোলা তাই বের হয়েছি।

এদিকে, হরতালের প্রভাব নেই মতিঝিল ও নিউমার্কেটের মতো ব্যস্ত এলাকাতেও। সেসব এলাকায় মানুষের সঙ্গে  যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। তবে সকাল থেকে পল্টন এলাকায় বন্ধ রয়েছে। সেখানে বাম দলের নেতাকর্মীরা সড়ক অবরোধ করেন।

গুলশান ট্রাফিক বিভাগের সহকারী পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ ইমরান হোসেন বলেন, বাড্ডা এলাকায় হরতাল সমর্থনে কোনো পিকেটিং হয়নি। রামপুরা থেকে উত্তরাগামী সড়কে যানজট রয়েছে।

- Advertisement -

সর্বশেষ খবরঃ

- Advertisement -

আপনার জন্য আরো খবর

উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে