আপনার জানার ও বিনোদনের ঠিকানা

‘জাগো নারী বহ্নি-শিখা’

ঠিকানা টিভি ডট প্রেস: ৮ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস। নারী দিবস উদযাপনের পেছনে রয়েছে নারী শ্রমিকের অধিকার আদায়ের সুদীর্ঘ সংগ্রামের ইতিহাস। বিশ্বের প্রান্তে প্রান্তে নারীদিবস উদযাপনের প্রধান লক্ষ্য নারীর প্রতি সম্মান, শ্রদ্ধা ও সংহতি জ্ঞাপন, নারীর আর্থিক, রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অবদমন প্রতিহত করা এবং নারীর বিরুদ্ধে নানামুখী আক্রমণ, সন্ত্রাস ও নির্যাতনের অবসান ঘটিয়ে নারীর মানবিক অধিকার প্রতিষ্ঠা করা।

১৮৫৭ সালে সুতা কারখানার নারী শ্রমিকেরা মজুরিবৈষম্য, কর্মঘণ্টা নির্দিষ্ট করা, কাজের অমানবিক পরিবেশের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে নিউইয়র্কের রাস্তায় নেমেছিলেন। সেই মিছিলে চলে সরকারি দমন-পীড়ন। প্রতিবাদে নারীরা ক্রমেই সংগঠিত হতে থাকেন।’

সর্বপ্রথম ১৯০৯ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক নারী সম্মেলন হয়। এই সম্মেলনে নেতৃত্বে দেন নিউইয়র্কের সোশ্যাল ডেমোক্র্যাট নারী সংগঠনের পক্ষ থেকে জার্মান সমাজতান্ত্রিক নেত্রী ক্লারা জেটকিন। ক্লারা ছিলেন জার্মান কমিউনিস্ট পার্টির স্থপতিদের একজন।

এরপর ১৯১০ সালে ডেনমার্কের কোপেনহেগেনে অনুষ্ঠিত হয় দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক না0রী সম্মেলন। ১৭টি দেশ থেকে ১০০ জন নারী প্রতিনিধি এতে যোগ দিয়েছিলেন। এ সম্মেলনে ক্লারা প্রতি বছরের ৮ মার্চকে আন্তর্জাতিক নারী দিবস হিসেবে পালন করার প্রস্তাব দেন।

এই সম্মেলনে সিদ্ধান্ত হয় যে, পরের বছর, অর্থাৎ ১৯১১ সাল থেকে নারীদের সম-অধিকার দিবস হিসেবে দিনটি পালিত হবে। দিবসটি পালনে অংশ নেয় দেশের গণতান্ত্রিক ও সমাজতন্ত্রীরা। এরপর ১৯১৪ সাল বেশ কয়েকটি দেশে ৮ মার্চ পালিত হয় আন্তর্জাতিক নারী দিবস।

১৯৭৫ সালে ৮ মার্চকে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি প্রদান করা হয় এবং দিবসটি পালনের জন্য বিভিন্ন রাষ্ট্রকে আহ্বান জানায় জাতিসংঘ। এরপর থেকে সারা পৃথিবী জুড়েই পালিত হচ্ছে দিনটি নারীর সমঅধিকার আদায়ের প্রত্যয় পুনর্ব্যক্ত করার অভীপ্সা নিয়ে।

তবে, শতবছরেরও পুরনো নারী অধিকার প্রতিষ্ঠার লড়াই অনেক সাফল্য অর্জন করলেও নারী-পুরুষের সমতা সুনিশ্চিত হয়নি। সমাজে এখনও নারীরা পশ্চাৎপদ ও অবহেলিত। এই অবদমন আর্থিক ক্ষেত্রে যেমন প্রকট, তেমনি রাজনৈতিক ক্ষেত্রেও সুস্পষ্ট। নারী বিষয়ক তথ্য-পরিসংখ্যানের দিকে তাকালে এ সত্য প্রতিভাত হয় যে, নারীরা ক্ষমতায়ন ও অংশগ্রহণের দিক থেকে অনেক পিছিয়ে।

পশ্চিমা কিছু কিছু দেশে সম্পদ, অধিকার, ক্ষমতা ও অংশগ্রহণে নারী ও পুরুষের সমতার বিষয়টি কিছুটা অগ্রসর হলেও উন্নয়নকামী দেশে অসাম্য ভয়াবহ। অনেক দেশেই নারীরা মানবিক, সামাজিক, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক ও মানবিক অধিকার বঞ্চিত।

বাস্তবতা হলো এই যে, নারীর প্রতি কর্মক্ষেত্রে, পাবলিক প্লেসে, গৃহে, বিদ্যাপীঠে নিপীড়ন, নির্যাতন ও নৃশংসতা চলছে। যৌন লালসার শিকার হচ্ছে শিশুরাও। নারী শ্রমিকের উপযুক্ত মর্যাদা ও মজুরি দেওয়া হচ্ছেনা।

নানা গবেষণা থেকে জানা যাচ্ছে বিভিন্ন ধরনের পারিবারিক নির্যাতনের ভয়ংকর ঘটনার তথ্য। যৌতুক ও অর্থের জন্য চলছে নারী হত্যা। সামগ্রিক অপরাধের পরিসংখ্যানের সিংহভাগ জায়গা দখল করে রেখেছে নিহত, নির্যাতিত, আহত নারী।

পাশবিক বর্বরোচিত কায়দায় মধ্যযুগীয় নৃশংসতা যেমনভাবে নারীর উপর চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে গ্রামে, গঞ্জে, গৃহকোণে, তেমনিভাবে নারীর সম্ভ্রম হানিকর বহু ঘটনা ঘটছে শহরের শিক্ষিত সমাজের অভিজাত এলাকা, অফিস ও বিশ্ববিদ্যালয়ে।’

দক্ষিণ এশিয়ায় নারী নির্যাতন ও পীড়ন সম্ভবত অতীতের সকল রেকর্ড ভেঙেছে। দিল্লি, বেঙ্গালুরু, ঢাকা, করাচি, চট্টগ্রামে নারী নির্যাতনের রোমহষর্ক ঘটনায় উত্তাল হয়েছে প্রতিবাদী মানুষ।

বিশ্ব নারী দিবসে এসব সমস্যা ও চ্যালেঞ্জ নিয়ে দেশে দেশে কথা ও, প্রতিবাদ জারি রেখেছে আন্দোলনকারীরা। নারীর অধিকার নিশ্চিত করে সমতাসূচক বাড়ানোর জন্য নেয়া হচ্ছে নানা কর্মসূচি। এইসব আশাবাদী উদ্যোগ শুধু নারী দিবসেই নয়, সারা বছরই গ্রহণ করা জরুরি। সমাজের টেকসই উন্নয়ন ও অগ্রগতির জন্য পুরুষের পাশাপাশি নারীকেও মর্যাদায়, সম্মানে, অধিকারে এগিয়ে আনা প্রগতি ও মানবতার দাবি। কুসংস্কার, পশ্চাৎপদতা ও অবদমন থেকে নারীর মানবিক উন্নয়ন ও উত্তরণ সভ্যতার বিকাশের জন্যই জরুরি।

দক্ষিণ এশিয়ার উন্নয়ন ও সুসভ্যতার আলোকিত দৃষ্টান্ত বাংলাদেশ নারী অগ্রগতিতে অনেকটুকু এগিয়েছে, এটা সত্য। অনেকক্ষেত্রেই বাংলাদেশের নারীরা অন্যান্য দেশের তুলনায় এগিয়ে। তারপরও নারীমুক্তি, নারী অধিকার, ক্ষমতায়ন ও অংশগ্রহণের পথে বহুদূর যেতে হবে বাংলাদেশকে। ২০২৪ সালের প্রতিপাদ্য তাই, ‘নারী সমানাধিকার, সমসুযোগ, এগিয়ে নিতে হোক বিনিয়োগ।’

নারী মুক্তির অগ্রদূত বেগম রোকেয়া যে ‘অবরোধবাসিনী’র উদাহরণ টেনে ছিলেন, নারী বিষয়ক পদক্ষেপের মাধ্যমে তাকে নিয়ে আসতে হবে আত্মমর্যাদা ও আত্মবিশ্বাসের পাদপ্রদীপের আলোয়। জাগরণের পথে সম্মিলিত পদভারে সবাইকে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের অবিস্মরণীয় উক্তির সাথে কণ্ঠ মিলিয়ে বলতে হব, ‘জাগো নারী বহ্নি-শিখা ‘।

Facebook
Twitter
WhatsApp
Pinterest
Telegram

এই খবরও একই রকমের

জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মাওলানা রফিকুল ইসলাম খান কারামুক্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মাওলানা রফিকুল ইসলাম খান উচ্চ আদালতের নির্দেশে গতকাল ১১ ফেব্রুয়ারি রবিবার রাত ৯ টায় কাশেমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার

সিরাজগঞ্জ শাহজাদপুরে পিক‌আপ ভ্যান থেকে ১৪ কেজি গাঁজা উদ্ধার, আটক ১

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি: রাজশাহী বিভাগীয় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের একটি অভিযানিক দল বগুড়া-নগরবাড়ি মহাসড়কের শাহজাদপুরে অভিযান চালিয়ে একটি পিকআপ থেকে ১৪ কেজি গাঁজা উদ্ধার করেছে। যার আনুমানিক

আগামী রোববার বৃষ্টির পূর্বাভাস দিল আবহাওয়া অফিস

ঠিকানা টিভি ডট প্রেস: সারা দেশে বৃষ্টি কমে যাওয়ায় তাপমাত্রা বেড়েছে। তাপপ্রবাহের কবলে পড়েছে দেশের ৪২ জেলা। আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, আজ বুধবারও (১৫ মে) তাপপ্রবাহ

‘জার্মানি সফর শেষে দেশে ফিরলেন প্রধানমন্ত্রী’

নিজস্ব প্রতিবেদক: জার্মানি সফর শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। টানা চতুর্থ মেয়াদে সরকার গঠনের পর মিউনিখ নিরাপত্তা সম্মেলনে যোগদান ছিল তার প্রথম বিদেশ সফর।

পুলিশের পোশাক পরে প্রবাসীর গাড়ি থামিয়ে ডাকাতি’

নিজস্ব প্রতিবেদক: নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে পুলিশের পোশাক পরিহিত অবস্থায় সৌদি প্রবাসী এক নারীর গাড়ি থামিয়ে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার (২৩ জানুয়ারি’) ভোরে উপজেলার তারাবো পৌরসভার ডেমরা

৪৫ পেরোলেই পেনশন চাই, যৌনপেশাকে শ্রম তালিকায় আনার দাবিতে পথে সোনাগাছি

কেন্দ্রের বিলের বিরুদ্ধে সরব হওয়ায় পুলিশ থেকে সমাজবিরোধীরা প্রতিনিয়ত যৌনকর্মীদের উপরে নির্যাতন করে চলেছে বলে অভিযোগ দুর্বারের। রবিবার মে দিবস। শ্রমিক দিবসের আগে শনিবার সন্ধ্যাতেই