আজ সোমবার ,২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৮শে জিলকদ, ১৪৪৩ হিজরি (বর্ষাকাল)

রাত ৪:৩৫

চয়নিকা চৌধুরীর ‘অন্তরালে’র সঙ্গী পরীমণি

- Advertisement -
- Advertisement -

গেলো জুনের প্রথম সপ্তাহে নিজের প্রথম ওয়েব ফিল্ম ‘অন্তরালে’র ঘোষণা দিয়েছিলেন নির্মাতা চয়নিকা চৌধুরী। প্রথম সিনেমা ‘বিশ্বসুন্দরী’র মতো প্রথম ওয়েব ফিল্মের নায়িকা হিসেবেও পরীমণিকে বেছে নিয়েছিলেন তিনি। সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে শুটিং শুরুর কথা থাকলেও সেটি আর হয়নি।

এরইমধ্যে গেলো ৪ আগস্ট পরীমণি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে আটকের পর চয়নিকা ও পরীর সম্পর্ক নিয়ে নানা প্রশ্ন ওঠে। এমনকি জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এই নির্মাতাকে সড়ক থেকে তুলে ডিবি কার্যালয়ে নেওয়া হয়েছিল। সেসময় দুজনই মানসিকভাবে খুব খারাপ পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছিলেন। তবে সকল আঁধার কাটিয়ে নিজেদের সামলে নিয়েছেন দুজনই। পরী কাজে ফিরেছেন, নতুন সিনেমাতেও চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। অন্যদিকে চয়নিকাও নতুনভাবে শুরু করতে চাইছেন।

সব ঠিকঠাক থাকলে আগামী নভেম্বরে শুরু করবেন ‘অন্তরালে’র কাজ। সেই যাত্রায় সঙ্গী হবেন পরীমণি, গণমাধ্যমকে এমনটিই জানিয়েছেন চয়নিকা চৌধুরী।

তিনি বলেন, ‘পরী আর আমার সম্পর্ক যেমন ছিল তেমনই আছে। অন্তরালে ওয়েব ফিল্মটি নিয়ে তার সঙ্গে আমাদের আরও একবার বসতে হবে।’

এই নির্মাতা আরও জানান, পরী সম্ভবত এখন ‘প্রীতিলতা’, ‘গুনিন’, ‘বায়োপিক’-এর কাজ করবেন। তাই অক্টোবর মাসের পুরো সময়টাই তার লাগবে। আর তাই আমার ওয়েব ফিল্মের কাজ শুরু হবে নভেম্বরে।

‘অন্তরালে’র পাণ্ডুলিপি লিখেছেন পান্থ শাহরিয়ার। এতে পরীকে দেখা যাবে একটি বনেদি হিন্দু পরিবারের বউ অর্পিতা চরিত্রে। তার স্বামীর চরিত্রে অভিনয় করবেন তারিক আনাম খান। ‘ব্ল্যাক অ্যান্ড হোয়াইট’ নিবেদিত ও কাজী রিটন প্রযোজিত এ ওয়েব ফিল্মটি দেখা যাবে একটি ওটিটি প্ল্যাটফর্মে।

গল্প প্রসঙ্গে পান্থ শাহরিয়ার জানান, ‘অর্পিতা একটি বনেদি পরিবারের বউ। স্বামী ব্যবসায়ী। তাদের ভালোবাসার মধ্যে একটা মার্ডার রহস্য যুক্ত হয়ে যাবে। মার্ডার মানেই যে মারপিট করে খুন, তা নয়। যদি মিডল ক্লাস জীবনে একটি খুন ঢুকে যায়, তাহলে জীবনটা কেমন হয়ে যায় সেটাই উঠে আসবে এতে।’

গেলো ১৮ সেপ্টেম্বর নাট্যনির্মাণের ২০ বছর পূর্ণ করেছেন দেশের গুণী নাট্যনির্মাতা চয়নিকা চৌধুরী। ২০০১ সা‌লে প্রথম নির্মাণ করেন খণ্ড নাটক ‘শেষ বেলায়’। তবে তার এই ২০ বছরের পথ চলা এতো সহজ ছিল না। যদিও পরিচালকের কোনো জেন্ডার নেই, কিন্তু একজন মেয়ে হিসেবে অনেক ভালো-মন্দ দেখেছেন তিনি। তবে আজকের দিনে দাঁড়িয়ে এসব ঘটনা নিয়েই গর্ববোধ করেন চয়নিকা চৌধুরী। বাংলাদেশের প্রথম নারী হিসেবে তিনিই প্রথম সবচেয়ে বেশি নাটক ও ধারাবাহিক নির্মাণ করেছেন।

- Advertisement -

সর্বশেষ খবরঃ

- Advertisement -

আপনার জন্য আরো খবর

উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে