আপনার জানার ও বিনোদনের ঠিকানা

উল্লাপাড়ায় বাশের চটা আর পলিথিনের ঝুপড়ি ঘরে সাবিনা দম্পতির বসবাস

জুয়েল রানা, উল্লাপাড়া প্রতিনিধি: সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় আড়াই বছর ধরে পাকা সড়কের ধারে সরকারী জায়গায় ঝুপড়ি ঘর তুলে সাবিনা দম্পতি বসবাস করছেন। তাদের ঝুপড়ি ঘর বাশের চটা আর পলিথিনের ছাউনির ঘর। সে ঘর এখন বেশ বেহাল দশা। সাবিনা দম্পতির সাথেই বসবাস করছেন সাবিনা খাতুনের বৃদ্ধা মা মিষ্টি খাতুন এবং বিবাহিতা মেয়ে রোজিনার পরিবার। উপজেলার সলঙ্গা ইউনিয়নের চৌবিলা গ্রামে সাবিনা খাতুনের বাবা রাহাত শেখের আগে পরিবার পরিজন নিয়ে বসবাস ছিল। নিজস্ব বসতভিটা না থাকায় তিনি গ্রামের একজনের ভিটেবাড়ীতে ঘর তুলে বসবাস করতেন বলে জানাযায়। প্রায় এক যুগ আগে রাহাত শেখ মারা গেছেন। উল্লাপাড়া উপজেলার বাঙ্গালা ইউনিয়নের বিনায়েকপুর গ্রামের রজব আলীর সাথে রাহাত শেখের মেয়ে সাবিনা খাতুনের বিয়ে হয়েছে। আগে স্বামী রজব আলী গাছি পেশায় কাজ করতেন। এখন বয়সের ভারে তেমন কাজ করতে পারেন না। তারও নিজস্ব বসতভিটা নেই এবং দিন আয়ে সংসার চলে। তিনি আগে চৌবিলা গ্রামে শ্বশুরবাড়ীতে বসবাস করতেন।

এখন সাবিনা দম্পতি উপজেলার ধামাইলকান্দি সলঙ্গা পাকা সড়কের ধারে জগজীবনপুর আলমের দহ নামে সরকারী জায়গায় বসবাস করছেন। এ দম্পতির ঘরে এক ছেলে ও এক মেয়ে সন্তান আছে বলে জানানো হয়। এর মধ্যে মেয়ে রোজিনা খাতুনের বিয়ে হয়েছে। তার স্বামী রঞ্জু আহমেদ দিন হাজিরায় নানা পেশায় মজুরী খাটেন। সে টাকায় সংসার চালান । তার নিজস্ব বসতভিটা না থাকায় সে স্ত্রী-সন্তান নিয়ে আলমের দহ এলাকায় শ্বশুরবাড়ীতে বসবাস করছেন।

জগজীবনপুর আলমের দহ এলাকায় সাবিনা দম্পতির বসতবাড়ীর রাস্তা দিয়ে প্রায় অনেকেই চলাচল করে কিন্ত নজরে আসলেও সহযোগিতা করেন নি কেউ। সড়কের ধারে সরকারী জায়গায় বসতঘর বলতে ভাঙাচোরা টিন, বাশের চটা , চাটাই পলিথিনের ছাউনির দুটি ছাপড়া ঘরে সাবিনা খাতুন দম্পতি এবং তাদের মেয়ে রোজিনা দম্পতি বসবাস করছেন। তারা প্রায় আড়াই বছর ধরে এখানে বসবাস করছেন। সাবিনা খাতুনের মা প্রায় পচাত্তর বছর বয়সী মিষ্টি খাতুন এখন বয়সের ভারে তেমন চলাচল করতে পারেন না। সাবিনা খাতুন বলেন, তার পিতার নিজস্ব বসতভিটা ছিলো না বলে বছরের পর বছর বিভিন্নজনের আশ্রয়ে বসবাস করেছেন। আবার তাকে বিয়ে দেওয়া হলে তার স্বামীরও নিজস্ব বসতভিটা ছিলোনা। সাবিনার নিজের মেয়েকে বিয়ে দেওয়া হয়েছে।

বসতভিটে না থাকা একজনের সঙ্গে তাদের বসতী ঘরগুলো এখন বেশ বেহাল দশা, মেরামত করার মত টাকা নেই । ঝড় বৃষ্টির দিন সামনে, তাদের চিন্তা একটাই বড় ভয়, ঝড় হাওয়ার কবলে বসতঘরের ক্ষতি হবে। তাই জনপ্রতিনিধি ও বিত্তবানদের সহযোগিতা কামনা করেছেন অসহায় গরিব পরিবার টি।

Facebook
Twitter
WhatsApp
Pinterest
Telegram

এই খবরও একই রকমের

‘অভিমান কাটেনি ১৪ দলের, উদ্যোগ নেই আওয়ামী লীগের’

নিজস্ব প্রতিবেদক: নির্বাচনের পর থেকেই অভিমান করে আছে ১৪ দলের নেতারা। ১৪ দলের নেতাদের এই অভিমান ভাঙানোর কোনো উদ্যোগ এখন পর্যন্ত আওয়ামী লীগ গ্রহণ করেনি।

‘আর্থিক খাতে অসুস্থ প্রতিযোগিতা, অনিশ্চয়তায় আমানতকারীরা’

ঠিকানা টিভি ডট প্রেস: ব্যাংক ও আর্থিক খাতে আমানত সংগ্রহে চলছে অসুস্থ প্রতিযোগিতা। কোনো কোনো দুর্বল ব্যাংক সর্বোচ্চ ১৩-১৪ শতাংশ পর্যন্ত সুদ অফার করছে। এ

যশোরে মদ্যপ অবস্থায় গ্রেপ্তার পৌর কাউন্সিলর যুবলীগ থেকে বহিষ্কার

জেমস আব্দুর রহিম রানা: যশোর পৌরসভার কাউন্সিলর ও জেলা যুবলীগের প্রচার সম্পাদক জাহিদ হোসেন মিলন ওরফে টাক মিলনকে যুবলীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। মদ্যপ অবস্থায়

ঘর নিয়ে বেসামাল আওয়ামী লীগ’

নিজস্ব প্রতিবেদক: টানা চতুর্থ মেয়াদে ক্ষমতা গ্রহণ করেছে আওয়ামী লীগ। বিরোধী রাজনৈতিক দলের আন্দোলনের তীব্রতা নেই, বিরোধীপক্ষ রীতিমতো নতজানু হয়ে পড়েছে। বিপর্যস্ত পরাজিত হয়েছে। অন্যদিকে

কর্মকর্তাই যেন ঠিকাদার সিরাজগঞ্জে টেন্ডার চূড়ান্ত হওয়ার আগেই কাজ শুরু’

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি: সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলার বিনসাড়া গ্রামে একটি কমিউনিটি ক্লিনিকের অবকাঠামো নির্মাণের কাজ চলমান রয়েছে। কিন্তু খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এখনো টেন্ডার প্রক্রিয়াই শেষ হয়নি!

সিরাজগঞ্জে ডেঙ্গু রোগে ১০ শ্রেনীর মেধাবী ছাত্রীর মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি: সিরাজগঞ্জের সদর উপজেলায় বাহুকায় ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মিথিলা নামের ১৬ বছর বয়সী এক ছাত্রীর মৃত্যু হয়েছে’। বৃহস্পতিবার ৩১ আগষ্ট সিরাজগঞ্জ শেখ ফজিলাতুন্নেছা