আজ বৃহস্পতিবার ,৩০শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৬ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১লা জিলহজ, ১৪৪৩ হিজরি (বর্ষাকাল)

রাত ৪:০২

আরতুগ্রুল খ্যাত বিখ্যাত সেই তুর্কি অভিনেতার নতুন সিরিজের সম্প্রচার

- Advertisement -
- Advertisement -

অবশেষে দীর্ঘ প্রতীক্ষা শেষ হয়েছে। বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার রাত ১২টায় তুরস্কের সরকারি টেলিভিশন টিআরটি ১-এ সম্প্রচার শুরু হয়েছে। উসমানীয় নাবিক খায়রুদ্দিন বারবারোসার জীবনীভিত্তিক তুর্কি সিরিজি ‘বারবারুস ভাইয়েরা- ভূমধ্য সাগরের তরবারি’।

সিরিজটিতে অভিনয় করেছেন তুরস্কসহ সারা বিশ্বের সময়ের জনপ্রিয় অভিনেতা এনজিন আলতান দোজইতান। তিনি এর আগে উসমানিয়া সাম্রাজ্যের সময়কে উপজীব্য করে বানানো তুর্কি সিরিজ ‘দিরিলিস আরতুগ্রুল’-এ অভিনয় করে বেশ খ্যাতি পান বিশ্বজুড়ে।

নতুন এ সিরিজটি প্রযোজনা করেছে তুরস্কের বিখ্যাত কোম্পানি ‘ইএস ফ্লিম’। কোম্পানিটি এর আগে আরেক ঐতিহাসিক সিরিজ ‘সুলতান আব্দুল হামিদ’ প্রযোজনা করে প্রশংসা কুড়ায়।

খায়রুদ্দিন বারবারোস ছিলেন উসমানীয় সাম্রাজ্যের অ্যাডমিরাল অফ দ্য ফ্লিট। শৈশবে তার নাম ছিল ‘খিজির’। তার আরো তিন ভাই ছিল। তাদের নাম যথাক্রমে ইসহাক, ইলিয়াস ও অরুচ।

খিজির ছিলেন তার বাবা মায়ের তৃতীয় সন্তান। চার ভাইয়ের মধ্যে খিজির ও অরুচের দাড়ির রং ছিল কমলা রঙের। এই কমলা রঙের দাড়ির কারণে ইউরোপীয়রা তাদের ‘বারবারোস ভাতৃদ্বয়’ উপাধি দিয়েছিল। আর উসমানিয়া সুলতান সুলাইমান খিজিরকে ‘খায়ের আদ-দিন’ উপাধিতে ভূষিত করেন, যার অর্থ ইসলামের শ্রেষ্ঠতম। ভূমধ্য সাগের তখন খ্রিষ্টানদের একচ্ছত্র আধিপত্য ছিল। বারবারোস ভাইয়েরা তাদের হটিয়ে উসমানিয়া সাম্রাজ্যের অধীনে সেখানে নিজেদের প্রতিপত্তি প্রতিষ্ঠা করেন। এর পেছনে রয়েছে তাদের অসামান্য সংগ্রাম, সেসব নিয়েই তৈরি করা হয়েছে ‘বারবারোস ভাইয়েরা- ভূমধ্য সাগরের তরবারি’। সিরিজটি।

সূত্র : আনাদুলু আরবি ও তুর্কি প্রেস

- Advertisement -

সর্বশেষ খবরঃ

- Advertisement -

আপনার জন্য আরো খবর

উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে