আজ শনিবার ,১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২রা আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২১শে সফর, ১৪৪৪ হিজরি (শরৎকাল)

সন্ধ্যা ৭:৩৮

অজ্ঞাত কারনেই প্রধান অভিযুক্তকে বাদ দিয়েই মামলা।

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে লোমহর্ষক যে ঘটনা ঘটেছে তার ভিডিও ফুটেজ দেখে গোটা দেশেই নিন্দার ঝড় উঠেছে৷ ইদানীং সারাদেশের দিকে তাকালে দেখা যায় প্রতিদিনই ধর্ষণ কিম্বা গণধর্ষণের চিত্র আছেই। পত্রিকা বা স্যাটেলাইট নিউজে যা আসে তার চেয়ে অনেকগুন বেশি অপরাধ, মানসম্মান এবং লোক লজ্জার ভয়ে চাপা থাকে। কেওবা ভয়ে মামলা থেকেও বিরত থাকে। আর এরই সুযোগে অপরাধীরা হয়ে ওঠে আরো হিংস্র। 

নোয়াখালী বেগমগঞ্জে কি ঘটেছিলো একমাস আগে? আমরা নির্ভর যোগ্য সূত্রের মাধ্যমে যা জেনেছি তা হলো ভুক্তভোগী রোজি আক্তারের স্বামীর সাথে তেমন একটা যোগাযোগ ছিলোনা। পরবর্তীতে তার স্বামী এলে এলাকার বখাটেরা অন্যের সাথে রাত্রিযাপনের দোহায় দিয়ে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন চালায়। এবং সেই নির্যাতনের ভিডিও ধারন করে তাদের স্মার্ট ফোনে। 

নির্যাতনের সময় রোজী আক্তার তাদের হাতে পায়ে ধরার পাশাপাশি বাবা ডেকেও রক্ষা পায়নি। নির্যাতনের মাত্রা এতটাই নির্মম ছিলো যে, এক পর্যায়ে নির্যাতন কারীরা তার যৌনাঙ্গে হাত এমন কি টর্স টাইট পর্যন্ত ঢুকিয়ে দেয়। এবং সে এই ঘটনার মামলা করা তো দূরের কথা কাওকে এই কথা বললে আবার নির্যাতন এবং তাদের ধারন করা ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়া হবে বলে হুমকি দেয়। তাদের বাড়ি ছেড়েও চলে যেতে নির্দেশ প্রদান করে এলাকার এই পরিচিত সন্ত্রাসীরা। উল্লেখ্য নির্যাতনের সময় নারীর আত্ম চিতকার শুনেও সন্ত্রাসীদের ভয়ে ছুটে আসেনি কেও। 

তাদের নির্যাতন থেকে বাঁচতেই বাড়ি ছাড়ে উক্ত পরিবার। বোনের বাসায় আশ্রয় নেয়। কিন্তু থেমে থাকেনি তাদের অত্যাচার এই দেলোয়ার বাহিনী তারা ফোন করে তাকে কু প্রস্তাব দিতো। রাজি না হলে ধারণ করা ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল করবে এমন মানুষিক চাপেও রেখেছিলো। ঘটনার ৩২ দিনের মাথায় ভিডিওটা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিলে সাথে সাথে তা ভাইরাল হয়। এবং নড়েচড়ে বসে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং প্রশাসন। 

আজ সকাল নাগাদ যা জানাগেছে তা হলো ভুক্তভোগী মামলা করেছে নয় জনের নামে। কিন্তু অজ্ঞাত কারনে বাদ দেওয়া হয়েছে এই নির্যাতনের প্রধান হোতা দেলোয়ার বাহিনী প্রধান দেলোয়ার কেই। ইতিমধ্যে দুজন এরেস্ট হয়েছে। বাকিদের গ্রেফতার করতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন পুলিশ।

সর্বশেষ খবরঃ

আপনার জন্য আরো খবর

উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে